NAVIGATION MENU

শোক দিবসে গুলশান সিকদার মেডিক্যাল হাসপাতালে চিকিৎসায় বিশেষ সুবিধা ঘোষণা


গুলশান শাখা জেডএইচ সিকদার উইমেনস মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের সমস্ত ডায়াগনস্টিক টেস্ট ২৫ শতাংশ ছাড় এবং চিকিৎসকদের বিনামূল্যে পরামর্শ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

শনিবার জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই ঘোষণা দিয়েছে।

প্রবীণ মুক্তিযোদ্ধা মেডিক্যাল কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান জয়নুল হক সিকদার, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তাঁর পরিবারের সদস্যদের শাহাদত বরণের দিনে শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের অংশ হিসেবে এ পরীক্ষা ফি মওকুফ করার জন্য হাসপাতালের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট একদল বিপথগামী সেনা অফিসার ও সদস্য বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে।

এ সুবিধাটি পাওয়া যাবে শনিবার সকাল ৮ টা থেকে বিকেল চারটার মধ্যে রাজধানীর গুলশান -২ এর সিকদার মেডিক্যাল, বাড়ি নং-৫, রোড নং-১০৪,  মেডিকেল গুলশান শাখায় পাওয়া যাবে।

আগ্রহী ব্যক্তিদের এই সুবিধাটি গ্রহণের জন্য  0255060030-32, 09609004444 নং-এ যোগাযোগের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব ঘটার পর ২০  জুন থেকে জেডএইচ সিকদার মহিলা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল সাংবাদিক, চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ সদস্য, সরকারি কর্মকর্তা এবং চিকিৎসায় থাকা সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের জন্য করোনভাইরাস সংক্রান্ত সমস্ত  চিকিৎসায় ২০ শতাংশ ছাড় দিয়ে যাচ্ছে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ৫০ শয্যা বিশিষ্ট এই হাসপাতালে দেশ-বিদেশের চিকিৎসক, নার্স এবং অত্যাধুনিক সরঞ্জাম রয়েছে।

করোনার নমুনা সংগ্রহের জন্য রয়েছে পৃথক ওয়ার্ডসহ ২১টি নতুন সিসিইউ এবং আইসিইউ শয্যা, পিসিআর ল্যাব, ভেন্টিলেটর, নেবুলাইজার মেশিন, কার্ডিয়াক মনিটর, পোর্টেবল ডিজিটাল এক্স-রে মেশিন, সিটি স্ক্যান, ইসিজি, ইকো এবং এমআরআই মেশিন, কেবিন এবং আধুনিক ওয়ার্ড সুবিধা।

জয়নুল হক সিকদার উইমেনস মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতাল দেশের চিকিৎসার ক্ষেত্রে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য এবং বিশ্বাসযোগ্য প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের নামটি বাংলাদেশের চিকিৎসা খাতের প্রথম সারির নামের সাথেই যুক্ত।

সিকদার গ্রুপ মেয়েদের একক চিকিৎসা শিক্ষা নিশ্চিত করার জন্য ১৯৯২ সালে  দেশে প্রথম মেডিক্যাল কলেজ প্রতিষ্ঠা করে। এই গ্রুপটির প্রথম কৃত্রিম হার্টের চিকিৎসা এবং দেশের প্রথম সফল ওপেন হার্ট সার্জারির কৃতিত্ব রয়েছে।

করেনা রোগ প্রতিরোধকল্পে সিকদার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের দ্বিতীয় শাখা গুলশানে ২০০০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

করোনার মহামারির প্রতিক্রিয়ায়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডাকে সাড়া দিয়ে দ্বিতীয় হাসপাতালটি কভিড-১৯ রোগের চিকিৎসার জন্য পুরোপুরি সজ্জিত করা হয়েছে।  

এস এস