NAVIGATION MENU

বাড়ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের রুট, উন্নত হবে যাত্রীসেবা


নিজস্ব প্রতিবেদক: বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, বিমানবন্দরের উন্নয়নে সরকারের পদক্ষেপ যোগাযোগ ব্যবস্থায় পরিবর্তন ঘটবে। চলতি অর্থবছরেই বাড়বে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের রুট।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বাড়বে অভ্যন্তরীণ বিমানবন্দরে যাত্রীসেবার মান। নির্মিত হবে সিভিল অ্যাভিয়েশন ইনস্টিটিউট। ফলে সহজ হবে যাতায়াত। বাড়বে ব্যবসা-বাণিজ্য ও পর্যটন।

গত ১১ জুন জাতীয় সংসদে ২০২০-২১ অর্থবছরের ঘোষিত বাজেটে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ে ২৬২ কোটি টাকা বরাদ্দ বেড়েছে। বাজেটে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের জন্য ৩ হাজার ৬৮৮ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। বিদায়ী ২০১৯-২০ অর্থবছরে এই বরাদ্দ ছিল ৩ হাজার ৪২৬ কোটি টাকা, সংশোধনে বরাদ্দের পরিমাণ দাঁড়ায় ৩ হাজার ৪১৭ কোটি টাকা।

ঘোষিত বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল বলেন, নিরাপদ, দক্ষ ও নির্ভরযোগ্য দ্রুতগতির যাত্রী ও পণ্য পরিবহন সুবিধাদি নিশ্চিতকরণে বিশ্বমানের বেসামরিক বিমান পরিবহন ব্যবস্থা গড়ে তুলতে সরকার কার্যকর পদক্ষেপ নিয়েছে। দেশের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরগুলোতে যাত্রী ও কার্গো হ্যান্ডলিং সক্ষমতার মান ও পরিধি বাড়ানোর কাজ চলছে।

জানা যায়, প্রস্তাবিত বাজেটে বাগেরহাট জেলায় খানজাহান আলী বিমানবন্দর নির্মাণসহ যশোর, সৈয়দপুর, বরিশাল বিমানবন্দর ও রাজশাহীর শাহ মখদুম বিমানবন্দরের সম্প্রসারণ ও নবরূপায়নের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী বাংলাদেশ বিমানের বহর সম্প্রসারণ, লাভজনক বিভিন্ন গন্তব্যে সাপ্তাহিক ফ্রিকোয়েন্সি বৃদ্ধি এবং উচ্চ চাহিদাসম্পন্ন গন্তব্য যেমন চিনের গুয়াংজু, চেন্নাই, কলম্বো, টোকিও, টরেন্টো, বাহরাইন, শারজাহ, নিউইয়র্ক ও ওমানের ছালালা হতে সার্ভিস সম্প্রসারণ অথবা পুনঃপ্রবর্তনের পরিকল্পনা রয়েছে। 

এ ছাড়াও দেশে একটি আন্তর্জাতিক মানের সিভিল অ্যাভিয়েশন ইনস্টিটিউট নির্মাণ করা হবে।

সিবি/এডিবি