NAVIGATION MENU

পদ্মাসেতুতে ৩৫তম স্প্যান বসানো সম্পন্ন, দৃশ্যমান ৫ হাজার ২৫০ মিটার


পদ্মাসেতুর মাওয়া প্রান্তের ৮ ও ৯ নম্বর পিলারে ৩৫তম স্প্যান বসানো সম্পন্ন হয়েছে। এ স্প্যান বসানোর মধ্যদিয়ে দৃশ্যমান হলো পদ্মাসেতুর ৫ হাজার ২৫০ মিটার।

শনিবার (৩১ অক্টোবর) সকাল ১০টা থেকে প্রায় ২ ঘন্টার প্রচেষ্টায় এ স্প্যান বসানো সম্পন্ন হয়। পদ্মাসেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সেতুর মাওয়া প্রান্তের ৮ ও ৯ নম্বর পিলারের (খুঁটি) উপর ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটি বসানো হয়েছে।

এ স্প্যান বসানোর মধ্যদিয়ে এ মাসে মোট ৪টি স্প্যান বসানো হলো। সব পিলার ও স্প্যান প্রস্তুত থাকায় এখন দ্রুততম সময়ের মধ্যে স্প্যান যোগ করা সম্ভব হচ্ছে বলে জানান প্রকল্প পরিচালক। ডিসেম্বরের মধ্যে ৬ দশমিক এক পাঁচ কিলোমিটারের পুরো সেতু দাঁড়ানোর আশা।

এর আগে ৩৪তম স্প্যানটি সেতুর ৭ ও ৮ নম্বর খুঁটিতে বসেছিল। রবিবার (২৫ অক্টোবর) সকাল ১০টায় এই স্প্যানটি বসানো হয়েছিল।

সেতুর প্রকৌশল বিভাগ জানিয়েছে, ‘করোনা ও বন্যার কারণে স্প্যান বসানোর কার্যক্রমে ধীরগতি দেখা দিয়েছিলো। বর্তমানে পদ্মা নদীতে পানির গভীরতা অনুকূলে আসায় প্রকৌশলীরা স্প্যান বসানোর কাজে গতি এনেছেন।’

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মাসেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে। মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চিনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতু আগামী ২০২১ সালেই খুলে দেওয়া হবে।

এমআইআরওআ