NAVIGATION MENU

শিল্প ও সাহিত্য

বাঁশির ডাক

বাঁশির ডাক

তাপস বড়ুয়াআর্মি স্টেডিয়ামে তিল ধারণের স্থান নেই। উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত শুনতে যে এত মানুষ আসতে পারে, ক’বছর আগেও মানুষ ধারণা করতো না। তন্ময় উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত বোঝে না। কিন্তু শুনতে তার ভাল লাগে। সেটাও বড় কথা নয়। সে এসেছে কতকগুলো নামের টানে। সে শুনে দেখতে চায় ওস্তাদ আয়ান আলী-আমান আলীর সারোদ, কৌশিকী চক্রবর্তীর কন্ঠ সঙ্গীত এবং বিশেষতঃ হরিপ্রসাদ চৌরাশিয়ার বাঁশি। পরে গল্প করতে চায় অন্যদের সাথে। উচ্চাঙ্গসংগীত শুনতে যাওয়াটা তাকে উচ্চাঙ্গের সংস্কৃতিবান মানুষ হিসেবে পরিচিত করবে পরিচিত মহলে। এটাই মূল লক্ষ্য।এরকম ভাবনা থেকে রাত দশটার দিকে সে স্টেডিয়ামে ঢোকে। প্রথমটা উসখুস করলেও রাত বারোটা নাগাদ সে একবারে মজে যায়। চোখ বন্ধ করে শুনছে আয়ান আলী-আমান আলীর সারোদ।  যদি তোর ডাক শুনে’ বাজিয়ে যখন আয়ান-আমান তাদের পরিবেশণা শেষ করলেন, ততক্ষণে অন্যের কাছে গল্প...

২৯ অক্টোবর, ২০১৯